কম্পিউটার ভাইরাস কি?

0

কম্পিউটার ভাইরাস কি? | কম্পিউটার ভাইরাস কত প্রকার ও কি কি?

যেহেতু আমরা এখন প্রযুক্তির যুগে বসবাস করছি। সেহেতু আমরা সবাই জানি যে, কম্পিউটার ভাইরাস কি (what is computer virus). অথবা কখনো না কখনো আমরা অবশ্যই কম্পিউটার ভাইরাস এর কথা শুনে থাকব। আর আপনি যদি কম্পিউটার অথবা ল্যাপটপ ব্যবহার করেন। তাহলে অবশ্যই আপনার কম্পিউটার ভাইরাস কি সে সম্পর্কে পূর্ণাঙ্গ ধারণা থাকা উচিত। কারণ এই ভাইরাস হলো একটি কম্পিউটার অথবা ল্যাপটপের জন্য অনেক ক্ষতিকর কিছু প্রোগ্রাম।

মূলত কম্পিউটার ভাইরাস কি গুলোর মধ্যে এমন কিছু প্রোগ্রাম থাকে। যে প্রোগ্রাম গুলোর সাহায্য অন্য আরেকটি কম্পিউটার ডিভাইস কে নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব। এর পাশাপাশি সেই ডিভাইসটি কে কন্ট্রোল করে আপনি নিজের ইচ্ছামত ব্যবহার করতে পারবেন। অধিকাংশ সময় দেখা যায়, যখন একটি কম্পিউটারে ভাইরাস দ্বারা অ্যাটাক করা হয়। তখন সেই কম্পিউটার টি একেবারে নিয়ন্ত্রণহীন হয়ে পড়ে।

তো আজকের এই আলোচনার মাধ্যমে আমি আপনাকে জানিয়ে দেয়ার চেষ্টা করব যে, কম্পিউটার ভাইরাস কি। এবং এই কম্পিউটার ভাইরাস কত প্রকার ও কি কি। এর পাশাপাশি আমি আপনাকে জানিয়ে দেয়ার চেষ্টা করব যে, আপনার কম্পিউটারে ভাইরাস দ্বারা অ্যাটাক করা হলে, আপনার কি কি ক্ষতি হবে। এবং কিভাবে আপনি এই কম্পিউটার ভাইরাস থেকে রক্ষা পাবেন। তার প্রতিটি বিষয় নিয়ে আজকের বিশদভাবে আলোচনা করব।

আরো দেখুন:

কম্পিউটার ভাইরাস কি?

কম্পিউটার ভাইরাস কি এটি হলো বিশেষ কিছু প্রোগ্রাম এর সমন্বয়। মূলত এই ভাইরাস এর মাধ্যমে আপনি অন্য আরেকটি কম্পিউটার কে নিয়ন্ত্রণে আনতে পারবেন। এবং আপনি আপনার পছন্দমত সেই কম্পিউটার টি কে ব্যবহার করতে পারবেন। এর পাশাপাশি যখন কোন একটি কম্পিউটারে ভাইরাস এর আক্রমণ হয়। তখন সেই কম্পিউটার টি অধিকাংশ সময় নিজে নিজেই অনেক গুলো প্রোগ্রাম কে রান করে ফেলে।

মনে করুন, আপনি কম্পিউটার ব্যবহার করছেন। এবং ব্যবহার করার সময় আপনি লক্ষ্য করতে পারলেন যে। আপনার কম্পিউটারে থাকা অনেক প্রয়োজনীয় ফাইল গুলো হঠাৎ করেই ডিলিট হয়ে গেছে। কিংবা আপনার কম্পিউটারে বেশ কিছু সফটওয়্যার নিজে থেকেই কাজ করছে। তো সেই সময় আপনি নিশ্চিত হতে পারবেন যে, আপনার সেই কম্পিউটার টি ভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত হয়েছে।

কম্পিউটার ভাইরাস কত প্রকার ও কি কি?

কম্পিউটার ভাইরাস কি সে সম্পর্কে আপনি উপরের আলোচনা তে বিস্তারিত জানতে পেরেছেন। তো কম্পিউটার ভাইরাস কি এই বিষয়টি জানার পাশাপাশি আপনাকে আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় সম্পর্কে জেনে নিতে হবে। আর সেই বিষয় টি হলো যে, কম্পিউটার ভাইরাস কত প্রকার ও কি কি। কারণ বর্তমান সময়ে আপনি বিভিন্ন ধরনের কম্পিউটার ভাইরাস দেখতে পারবেন। আর এই ভাইরাস গুলো কে বেশ কয়েকটি ভাগে ভাগ করা হয়ে থাকে।

এবং বিভিন্ন সময় বিভিন্ন রকম ভাইরাস দ্বারা আমাদের কম্পিউটার গুলো অ্যাটাক হয়ে থাকে। চলুন এবার তাহলে জেনে নেয়া যাক যে, কম্পিউটার ভাইরাস কত প্রকার ও কি কি (Kind of computer virus).

1. Worms Computer Virus

আপনি মোট যতগুলো কম্পিউটার ভাইরাস দেখতে পারবেন। তার মধ্যে সবচেয়ে ভিন্ন ধর্মী একটি কম্পিউটার ভাইরাস এর নাম হলো Worms. মূলত এই ধরনের কম্পিউটার ভাইরাস গুলো তে এমন কিছু কোডিং করা থাকে। যা আপনি কোন ভাবেই বুঝতে পারবেন না যে। আপনার কম্পিউটারে এই ধরনের ভাইরাস দ্বারা অ্যাটাক হয়েছে। কারণ এই ভাইরাস গুলো তে যেসব কোডিং কিংবা প্রোগ্রামিং ব্যবহার করা হয়। সেগুলো সময় এর সাথে সাথে নিজের কোডিং গুলো কে বদলে ফেলতে পারে।

আর এই ধরনের বিশেষ কম্পিউটার ভাইরাস গুলো যখন কোন একটি ডিভাইস এর মধ্যে প্রবেশ করে। তখন এই ভাইরাস গুলো ক্রমাগত ভাবে একটি কম্পিউটার এর মধ্যে ছড়িয়ে পড়তে শুরু করে। এবং ধীরে ধীরে পুরো কম্পিউটার কে অ্যাটাক করে ফেলে। যার ফলে একজন কম্পিউটার ব্যবহারকারী কোনভাবেই বুঝে উঠতে পারে না যে। তার শখের কম্পিউটার টি ভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত হয়েছে।

2. Trojan Computer Virus

যদি আপনি অনলাইন সম্পর্কে একটু ধারণা রাখেন। তাহলে অবশ্যই আপনি অনলাইনে হ্যাকার শব্দটি শুনে থাকবেন। মূলত যারা হ্যাকার তারা অধিকাংশ সময় যে ভাইরাস দ্বারা আক্রমণ করে। সেই কম্পিউটার ভাইরাস এর নাম হলো Trojan. 

মূলত এই ভাইরাসটির বিশেষ গুণ রয়েছে। আর সেটি হল যখন একজন হ্যাকার ইন্টারনেটের মাধ্যমে এই ভাইরাসটি কে কোন একটি কম্পিউটারের মধ্যে প্রবেশ করাতে পারে। তখন সেই কম্পিউটারের মধ্যে থাকা সকল প্রকার প্রয়োজনীয় ডেটা গুলো কে হ্যাকার তার নিজের কাছে নিতে পারে। এবং সেই প্রয়োজনীয় ডেটা গুলো দিয়ে হ্যাকাররা বিভিন্ন রকমের ক্ষতি সাধন করে থাকে।

3. Browser Computer Virus

কম্পিউটার ভাইরাস এর মধ্যে অনেক পরিচিত একটি ভাইরাস এর নাম হলো, Browser Virus. মূলত আমাদের কম্পিউটারের মধ্যে ব্যবহার করা ব্রাউজার এর মাধ্যমে এই ধরনের ভাইরাস গুলো প্রবেশ করে থাকে। এবং যখন এই ধরনের ভাইরাস গুলো প্রবেশ করে। তখন একটি কম্পিউটারের এক্সটেনশন বা অথবা প্লাগিন হিসেবে কাজ করে। এবং যখন আপনি সেই ব্রাউজার দিয়ে কোন একটি ওয়েবসাইট ভিজিট করবেন। তখন আপনাকে বিভিন্ন প্রকারের বিজ্ঞাপন দেখানো হয়।

আর একজন ব্যবহারকারী হিসেবে আপনি যখন তাদের এই বিজ্ঞাপন গুলো দেখবেন। তখন সেই বিজ্ঞাপন গুলো দেখানোর ফলে হ্যাকাররা ইনকাম করে থাকে। আর যেহেতু এই ধরনের ভাইরাস গুলো ব্রাউজার এর ডাউনলোড অপশন এর মাধ্যমে কম্পিউটারে প্রবেশ করে। সেই কারণে এই ধরনের ভাইরাস গুলো কে বলা হয়ে থাকে, কম্পিউটার ব্রাউজার ভাইরাস।

5. Overwrite Computer Virus

অন্যান্য সব ভাইরাস গুলোর চাইতে সবচেয়ে ক্ষতিকর একটি কম্পিউটার ভাইরাস এর নাম হলো Overwrite Virus. মূলত যখন এই ধরনের ভাইরাস আপনার কম্পিউটারে প্রবেশ করবে। তখন আপনার কম্পিউটারের মধ্যে থাকা বিভিন্ন রকমের প্রোগ্রাম গুলো কে নিজে থেকেই এডিট করবে। 

এবং আপনার কম্পিউটারের যাবতীয় প্রোগ্রাম গুলো কে এলোমেলো করে ফেলবে। আর যেহেতু এই ধরনের ভাইরাস গুলো নিজে থেকেই বিভিন্ন প্রকার প্রোগ্রাম কিংবা ফাইল কে এডিট করতে পারে। সেহেতু এই ধরনের ভাইরাস গুলো কে বলা হয়ে থাকে Overwrite Virus.

প্রিয় পাঠক, উপরে আমি আপনাকে বেশ কিছু কম্পিউটার ভাইরাস এর সাথে পরিচিত করার চেষ্টা করেছি। তবে এ গুলোর বাইরে আপনি আরো বিভিন্ন ধরনের কম্পিউটার ভাইরাস দেখতে পারবেন। যেমন অনেক পরিচিত কিছু কম্পিউটার ভাইরাসের নাম হলো Spyware & Adware Computer Virus. 

মূলত এই ধরনের ভাইরাস গুলো ইন্টারনেট এর মাধ্যমে আপনার কম্পিউটার ডিভাইসে প্রবেশ করে। এবং আপনার কম্পিউটারের বিভিন্ন প্রকার ক্ষতি সাধন করে থাকে।

কম্পিউটার ভাইরাস কি কি ক্ষতি করে?

এতক্ষণের আলোচনায় আপনি জানতে পেরেছেন যে, কম্পিউটার ভাইরাস কি এবং কম্পিউটার ভাইরাস কত প্রকার ও কি কি। তো আপনি যদি উপরের আলোচনা গুলো পড়ে থাকেন। তাহলে আমার দীর্ঘ বিশ্বাস রয়েছে যে, এই বিষয় গুলো সম্পর্কে আপনি একেবারে পরিষ্কার ধারণা পেয়ে গেছেন। এখন আপনাকে জানতে হবে যে, কম্পিউটার ভাইরাস কি কি ক্ষতি করে থাকে।

মূলত আমরা সবাই জানি যে, একটি কম্পিউটারে যখন ভাইরাস দ্বারা অ্যাটাক করা হয়। তখন সেই কম্পিউটারের বিভিন্ন রকমের ক্ষতি হয়ে থাকে। তবে ভাইরাস এর প্রকারভেদ অনুযায়ী একটি কম্পিউটারের নানা ধরনের ক্ষতি হয়ে থাকে। চলুন এবার তাহলে সে সম্পর্কে একটু আলোকপাত করা যাক।

  1. মূলত একটি কম্পিউটার বিভিন্ন প্রকারের প্রোগ্রাম এবং কোডিং এর সমন্বয়ে কাজ করে থাকে। তো যখন কম্পিউটারে ভাইরাস দ্বারা অ্যাটাক হয়। তখন এই ধরনের প্রোগ্রাম গুলো এলোমেলো হয়ে যায়।
  2. বিশেষ কিছু কম্পিউটার ভাইরাস রয়েছে। যে ভাইরাস গুলো আপনার কম্পিউটারের মধ্যে প্রবেশ করার পরে নানা ধরনের ফাইল কে নিজে থেকেই এডিট করতে পারে।
  3. যখন একটি কম্পিউটার ভাইরাস দ্বারা অ্যাটাক হয়। তখন সেই কম্পিউটারের মধ্যে অনেক প্রয়োজনীয় সফটওয়্যার এবং ফাইল নিজে থেকেই ডিলিট হয়ে যায়।
  4. সবচেয়ে বড় কথা হলো যে, এমন কিছু কম্পিউটার ভাইরাস রয়েছে। যে ভাইরাস গুলো আপনার ডিভাইসে প্রবেশ করার পরে। আপনি আপনার কম্পিউটার কে নিজের মতো করে নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন না।
  5. একটি কম্পিউটারের মধ্যে বিভিন্ন প্রকার ব্যক্তিগত ডাটা থাকে। আর আপনি এমন অনেক ধরনের কম্পিউটার ভাইরাস দেখতে পারবেন। যে ভাইরাস গুলো মূলত এই ধরনের প্রয়োজনীয় ডেটা গুলো কে চুরি করে থাকে।
  6. কিছু কিছু কম্পিউটার ভাইরাস আপনার ব্রাউজার এর মধ্যে প্রবেশ করে। এবং যখন আপনি সেই ব্রাউজার গুলো দিয়ে ইন্টারনেট ব্যবহার করবেন। তখন আপনাকে বিভিন্ন প্রকারের পপ-আপ বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করা হয়।

তো একটি কম্পিউটার এর মধ্যে যখন ভাইরাস দ্বারা আক্রমণ করা হয়। তখন সেই কম্পিউটারের কি কি ক্ষতি হয়। সেই ক্ষতি গুলো নিয়ে আমি উপরে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। তবে এখানে একটা কথা বলে রাখা উচিত যে, ভিন্ন ধর্মী ভাইরাস ভেদে একটি কম্পিউটারের বিভিন্ন প্রকারের ক্ষতি হয়ে থাকে।

কম্পিউটার ভাইরাস কি ধরনের প্রোগ্রাম?

উপরে আলোচিত কম্পিউটার ভাইরাস কি এই আলোচনায় আমি আপনাকে একটা কথা বলেছি। আর সেই কথাটি হলো যে, কম্পিউটার এর মধ্যে ভাইরাস হলো বিশেষ এক ধরনের প্রোগ্রাম। যে প্রোগ্রাম গুলোর মাধ্যমে একটি কম্পিউটার এর মধ্যে ভাইরাস দ্বারা অ্যাটাক করা হয়ে থাকে। তবে এই কথাটি জানার পরে অনেকের মনে একটি প্রশ্ন জেগে থাকবে। আর সেই প্রশ্নটি হল যে, এই কম্পিউটার ভাইরাস কি ধরনের প্রোগ্রাম।

দেখুন একটি কম্পিউটার কে পরিচালনা করার জন্য যেমন বিভিন্ন প্রকারের প্রোগ্রাম এর প্রয়োজন হয়। ঠিক তেমনি ভাবে একটি ভাইরাস কে তৈরি করার জন্য বিভিন্ন প্রকারের কোডিং এবং প্রোগ্রামিং করা হয়ে থাকে। তবে ভাইরাস এর জন্য যেসব প্রোগ্রাম তৈরি করা হয়। সেই প্রোগ্রাম গুলোর বিশেষ ক্ষমতা রয়েছে। যেমন এই ধরনের কম্পিউটার ভাইরাসে ব্যবহার করা প্রোগ্রাম গুলোর মাধ্যমে আপনি কোন প্রকার পারমিশন ছাড়াই আরেক টি কম্পিউটার কে নিয়ন্ত্রণে নিতে পারবেন।

এর পাশাপাশি কিছু কিছু কম্পিউটার ভাইরাস এর মধ্যে এমন সব প্রোগ্রাম ব্যবহার করা হয়। যখন সেই ভাইরাস গুলো অন্য আরেকটি কম্পিউটারের মধ্যে প্রবেশ করা হয়। তখন সেই কম্পিউটারের মধ্যে থাকা বিভিন্ন প্রকারের ডাটা আপনার কাছে পাঠিয়ে দিতে পারবে। এবং সেই কম্পিউটারের মধ্যে বিভিন্ন প্রকার ফাইল কে নিজে থেকেই এডিট করার মতো ক্ষমতা এই ভাইরাস গুলোর মধ্যে রয়েছে।

আরো দেখুন:

কম্পিউটার ভাইরাস মুক্ত রাখার উপায়

উপরের আলোচনায় আমি আপনাকে জানিয়ে দেয়ার চেষ্টা করেছি যে, কম্পিউটার ভাইরাস কি। এবং এই কম্পিউটার ভাইরাস কত প্রকার ও কি কি। এর পাশাপাশি একটি কম্পিউটার ভাইরাস যখন অ্যাটাক করে। তখন সেই কম্পিউটারের কি কি ক্ষতি হয়, সে সম্পর্কে বিশদ ভাবে আলোচনা করেছি। তো আপনার জন্য এই বিষয় গুলো জেনে নেয়াটা আপনার জন্য অতি প্রয়োজনীয়।

তবে কিভাবে আপনি আপনার শখের কম্পিউটার কে এই ধরনের ক্ষতিকর ভাইরাস থেকে রক্ষা করবেন। সে সম্পর্কে এবার কিছু বলা উচিত। কারণ এমন কিছু বিষয় আছে যে, বিষয় গুলোর উপর লক্ষ্য রাখলে। আপনার কম্পিউটারে কখনোই ভাইরাস দ্বারা অ্যাটাক হবে না। চলুন এবার তাহলে সেই কম্পিউটার ভাইরাস মুক্ত রাখার উপায় গুলো সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

  1. প্রথমত আপনি যদি উইন্ডোজ ব্যবহার করে থাকেন। তাহলে অবশ্যই আপনি আপনার কম্পিউটারে ব্যবহার করা উইন্ডোজ কে আপডেট রাখার চেষ্টা করবেন।
  2. মনে রাখবেন, আপনি যখন প্রিমিয়াম সফটওয়্যার গুলো কে ফ্রিতে ডাউনলোড করবেন। তখন অবশ্যই সাবধানতা অবলম্বন করবেন।
  3. যখন আপনি আপনার কম্পিউটার এর ব্রাউজার থেকে একটি ওয়েবসাইট ভিজিট করবেন। তখন সেই ওয়েবসাইট গুলো কে পারমিশন দেয়ার সময় নোটিফিকেশন গুলো ভালোভাবে চেক করবেন।
  4. একটি কথা অবশ্যই বলা উচিত। আর সেটি হল যে, আমরা অধিকাংশ সময় ক্রাক সফটওয়্যার গুলো ব্যবহার করি। আসলে এই ধরনের সফটওয়্যার গুলো তে প্রচুর পরিমাণ কম্পিউটার ভাইরাস থাকে।
  5. অধিকাংশ সময় ইন্টারনেট এর মাধ্যমে কম্পিউটার ভাইরাস প্রবেশ করে থাকে। তাই যখন আপনি ইন্টারনেট ব্যবহার করবেন। তখন অবশ্যই সতর্কতা অবলম্বন করবেন।

দেখুন একটি কম্পিউটারে তখনই ভাইরাস প্রবেশ করে। যখন আমাদের মধ্যে অসাবধানতা থাকে। কারণ আমরা বিভিন্ন সময় ইন্টারনেটের মাধ্যমে বিভিন্ন ওয়েবসাইট এবং সফটওয়্যার ব্যবহার করি। তো আমরা যদি এই ব্যবহার করার দিক থেকে সতর্কতা অনুসরণ করি। তাহলে কিন্তু আমাদের কম্পিউটার গুলো ভাইরাস থেকে একেবারেই মুক্তি পাবে।

কম্পিউটার ভাইরাস নিয়ে কিছু কথা

প্রিয় পাঠক, কম্পিউটার ভাইরাস কি সে বিষয়টি নিয়ে আজকে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। এর পাশাপাশি আমি আপনাকে আরো বেশ কিছু বিষয় সম্পর্কে ধারণা দেয়ার চেষ্টা করেছি। যেমন, একটি কম্পিউটারে ভাইরাস আক্রমণ হলে সেই কম্পিউটারের কি কি ক্ষতি হবে। এবং কিভাবে আপনি কম্পিউটার ভাইরাস থেকে আপনার শখের কম্পিউটার কে সুরক্ষিত রাখবেন। তার বেশ কিছু উপায় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

যদি আপনি এই বিষয় গুলো সম্পর্কে জানতে চান। তাহলে অবশ্যই আপনাকে আজকের পুরো আর্টিকেলটি মনোযোগ দিয়ে পড়তে হবে। আর আপনি যদি এই ধরনের টেকনোলজি রিলেটেড আর্টিকেল পেতে চান। তাহলে অবশ্যই আমাদের সাথে থাকবেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.