তিশা নামের অর্থ কি?

0
Rate this post

তিশা নামের অর্থ কি? | Tisha Name Meaning In Bengali

তিশা নামের অর্থ কি বাংলাদেশের একটি পরিচিত নাম। বাংলাদেশের অনেক মেয়ের নামই তিশা। বাংলাদেশের প্রচলিত একটি নাম হচ্ছে তিশা এবং এটিকে আরেকভাবে বলা হয় তৃষা দুইভাবেই বলা যায়। এই ভাবেই আপনি বলুন না কেন তার অর্থ একই। কিন্তু আরো কিছু বিষয়ে আপনার জানা প্রয়োজন তিশা নামের অর্থ কি সম্পর্কে। আর সাধারণত এই নামটির অর্থ মানে হচ্ছে যেকোনো কিছু পাওয়ার প্রবল ইচ্ছা বা আকাঙ্খা। আমরা সাধারণ অর্থে এটা বুঝে থাকি যে, অনেক বেশি পানি পান করার যখন ইচ্ছা হয় তখন সেটাকে তৃষা বলে।

এর মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন Tisha namer ortho ki, তিশা নামের অর্থ কি, তিশা নামের ইংরেজি বানান কি, তিশা  নামের আরবি বানান কি, তিশা নামের ইংরেজি অর্থ, তৃষা নামের বাংলা অর্থ ইত্যাদি বিষয়গুলো। শেষ পর্যন্ত পড়ার অনুরোধ রইল। ভালো কিছু জানতে চাচ্ছেন আশা করছি। 

আরো দেখুন: সুলতানা নামের অর্থ কি?

তিশা নামের অর্থ কি ? (Tisha namer ortho ki)

তিশা নামের অর্থ কি অর্থ হচ্ছে প্রবল ইচ্ছা, আকাঙ্ক্ষা, কোন কিছু পাওয়ার ইচ্ছা। যখন মানুষের কোন কিছু পাওয়ার তীব্র ইচ্ছা হয়ে থাকে তখনই ঐটাকে আর তৃষা বলে সহজ বাংলায়।

তিশা নামটির উৎপত্তি কোথা থেকে?

তিশা নামের উৎপত্তি আরবি ভাষা থেকে। আরবি ভাষা থেকে পরবর্তীতে নামটি বাংলায় এসে মিশে গেছে। 

  • তিশা নামের আরবি বানান কি: তিশা নামের আরবি বানান হলো – تيشا
  • তিশা নামের উর্দু বানান কি: তিশা নামের উর্দু বানান হলো – تیشا
  • তিশা নামের ইংরেজি বানান কি: তিশা নামের ইংরেজি বানান হলো – Tisha
  • তিশা নামের হিন্দি বানান কি: তিশা নামের হিন্দি বানান হলো – तिशा

তিশা নামের বাংলা অর্থ কি ?

তিশা নামের অর্থ কি নামের বাংলা অর্থ হলো প্রবল ইচ্ছা, আকাঙ্ক্ষা, কোন কিছু পাওয়ার ইচ্ছা। কোনো কিছু পাওয়ার জন্য মানুষ যখন তীব্রভাবে চেষ্টা করে থাকে বা তার ইচ্ছা, শ্রম দিয়ে থাকে তখনই তখনই তাকে তিশা বলে। 

তিশা নামের ইংরেজি অর্থ কি?

তিশা নামের ইংরেজি বানানও অনেকটা সহজ। তিশা শব্দের ইংরেজি অর্থ হল Strong desire (প্রবল ইচ্ছা), Desire (আকাঙ্ক্ষা), Desire to get something (কোন কিছু পাওয়ার ইচ্ছা)। সকল ভাষাভাষী লোকের মত করে ইংরেজী ভাষাভাষী লোকেরাও তিশা নামটি সম্পর্কে জানতে পারবেন এর অর্থ দ্বারা। 

তিশা নামের আরবি অর্থ কি?

তিশা নামের আরবি অর্থ হলো প্রবল ইচ্ছা, আকাঙ্ক্ষা, কোন কিছু পাওয়ার ইচ্ছা। আরবি ভাষায় তৃষা ওই জিনিসটা কে বোঝায় যে জিনিসটা পাওয়ার জন্য আপনার ভিতর একটি তীব্র ইচ্ছা কাজ করে, বলতে পারেন প্রবল আকাঙ্ক্ষা বা যাকে পাওয়ার জন্য আপনি নিজের কষ্টকে কষ্ট মনে করেন না। 

তিশা নামটি কি ইসলামিক ?

হ্যাঁ, এটি একটি ইসলামিক নাম। আপনি যেকোনো জিনিস শেখার জন্য, করার জন্য, অর্জন করার জন্য আপনার ভিতর একটি তিশা থাকা উচিত। কোন কিছু পাওয়ার তৃষ্ণা যদি আপনার ভেতরে না থাকে আপনি কখনোই সেই লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারবেন না। যার সপ্ন আপনি দেখেন। ধরুন, আপনি কোরআন শিখতে চান বা আপনি ইংরেজি ভাষায় খুবই দক্ষ হতে চান আপনার ভিতরে যদি শুধু ইচ্ছা থাকলেই হবে না প্রবল ইচ্ছা থাকতে হবে। আপনি যদি কাজ না করেন, নিজেকে পরিশ্রম না করান তাহলে আপনি কখনোই সেটা অর্জন করতে পারবেন না। 

তাই যেকোনো কিছু অর্জন করার জন্য আপনার প্রবল ইচ্ছা থাকা জরুরি। আর এটিতো ইসলামিক দিক থেকে তাহলে অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। কারণ আপনি চান যে, আমি কোরআন শিখতে চায় কিন্তু আমি সময় করতে পারছি না, আমার এই কাজ, ওই কাজ!! আপনি কি তাহলে নিজেকে ধোকা দিচ্ছেন না?? আপনি কি এটা নিজেকে বোঝাচ্ছে না যে আপনি জান্নাতে যেতে চান না??!! আপনার ভেতরের আর জান্নাতে যাওয়ার কোন ইচ্ছা নেই বা আপনি যার দুনিয়াতে থাকছেন, যার খাচ্ছেন তার কথাই মানছেন না??! প্রশ্নগুলোর উত্তর আশা করি নিজ থেকেই বের করবেন।

তিশা শব্দ দিয়ে কিছু নাম

তুষার শব্দটির সাথে আপনি কি কি নাম যোগ করতে পারেন তার একটি সাজেশন বা তালিকা আপনার জন্য দেওয়া হলো। 

  • শিরিন তিশা। 
  • তিশা মুনজারিন। 
  • আয়াত করিম তিশা 
  • তাহমিনা রহমান তিশা 
  • তৌসিফ রহমান তিশা। 
  • তিশা চৌধুরী।
  • তিশা রহমান।
  • তিশা খাদিজা।
  • আক্তার তিশা।
  • তিশা খাতুন।
  • তিশা সুলতানা। 
  • তিশা হোসেন। 
  • তিশা আক্তার তুলি। 
  • তিশা মুসকান। 

আরো দেখুন:

তিশা নামটি কি জনপ্রিয় ?

হ্যা, তিশা একটি জনপ্রিয় নাম বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে। বাংলাদেশের অনেক পিতা-মাতারা  তাদের কন্যা সন্তানের নাম তিশা রেখে থাকেন। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে যে, তিশা শব্দটির সাথে সকল ভাষাভাষী লোকের কাছে একটি পরিচিত শব্দ। কারণ এই শব্দটি মানুষকে মানুষের লক্ষ্যে পৌঁছাতে  কি করতে হবে তা জানান দেয়। 

উপসংহার: পরিশেষে এই কথাই বলবো যে, কোন কাজ করার জন্য আপনার ভিতর একটি তীব্র ইচ্ছা থাকা উচিত। যদি আপনি সত্যিকার অর্থেই সে কাজটি করতে চান বা কোনো কিছু পেতে চান। আর অবশ্যই তা ভালো কিছু করা বা হওয়ার উদ্দেশ্যেই হওয়া উচিত। কখনোই মন্দ উদ্দেশ্যে নিয়ে কোন কিছু পাওয়ার ইচ্ছা পোষণ করা উচিত না।

আর একজন মুসলিম (Tisha namer ortho ki) তিশা নামের অর্থ কি হিসেবে তো আপনার জীবনের অনেক অনেক ক্ষেত্রেই আপনার ভিতরে তীব্র ইচ্ছা থাকতে হবে প্রকৃত মুমিন হওয়ার জন্য, ভালোভাবে কোরআন শেখার জন্য, নিজেকে কিভাবে একজন খাঁটি বান্দা বানানো যায় আর আল্লাহর বান্দা হওয়া যায়।

Leave A Reply

Your email address will not be published.